ঢাকা, রবিবার, ১৬ মে ২০২১

জুতা পায়ে শহীদ মিনারে মাল্যদান কলেজ শিক্ষকদের

এম, সাইফুজ্জামান তাজু, বিশেষ প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ

২০২০-১২-১৬ ১৬:৪১:৩৩ /

ছবি- সংগৃহিত
জাতির রক্তমাখা সংগ্রাম ও ইতিহাসের প্রতীক শহীদ মিনার। মিনারের উচুঁ স্তম্ভটি দেশের মাতৃরূপ ও ছোট স্তম্ভগুলি তাঁর সূর্যসন্তান যাঁরা দেশ মাতৃকার স্বাধীনতা, ইতিহাস ও ঐতিহ্য রক্ষায় বিসর্জন দিয়েছেন তাঁদের জীবন। এটি শুধু ইট সিমেন্টের তৈরি কোন সাধারণ স্থাপনা নয়। শিক্ষার্থী তথা দেশবাসীকে দেশপ্রেমের শিক্ষা দেবার গুরুদায়িত্ব যাদের উপর ন্যস্ত তাঁরা শিক্ষক। এবারে আবারো তাঁদের দ্বারাই আবারো লঙ্ঘিত হলো শহীদ মিনারের পবিত্রতা।

গত সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে বাঙালির সূর্য সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাতে ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুণ্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া হাজি আরশাদ আলী ডিগ্রি কলেজের শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে জুতা পায়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন শিক্ষকরা। এ ছবি সোমবার সন্ধ্যার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। জাতির সূর্য সন্তানদের অবমাননার দায়ে ওই শিক্ষকদের বিচার দাবি করে ছাত্র ও সচেতন এলাকাবাসী।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ওই ছবিতে দেখা যায়, অধ্যক্ষ একেএম মোত্তালেব হোসেনের নেতৃত্বে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করতে ওঠেন আট শিক্ষক। তাদের প্রত্যেকের পায়েই ছিল জুতা। আর শিক্ষার্থীরা এই ফুল দেওয়ার ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়।

এক শিক্ষার্থী ফেসবুকে লিখেছেন, 'জাতি গড়ার কারিগররাই যদি এভাবে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি অবমাননা করেন, তাহলে সেটি ক্ষমার অযোগ্য।'

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার রেজাউল ইসলাম বলেন, এটি লজ্জাজনক ঘটনা। এতে জাতির সূর্যসন্তানদের অবমাননার পাশাপাশি নষ্ট করা হয়েছে শহীদ মিনারের পবিত্রতা। তিনি বলেন, দেশ গড়ার কারিগররা এমন অবজ্ঞা দেখালে তাদের কাছ থেকে কী শিক্ষা পাবে?

অধ্যক্ষ একেএম মোত্তালেব হোসেন বিষয়টিকে অনিচ্ছাকৃত ভুল বলে এক লিখিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন। তিনি এ জন্য দুঃখ প্রকাশ করে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি রওশন আলী বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউএনও সৈয়দা নাফিস সুলতানা বলেন, এ ঘটনায় শহীদ মিনারের পবিত্রতা নষ্ট হয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি-শিক্ষা//আলম

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

বাবা-মায়ের সঙ্গে ঈদ করতে ২৫৫ কিমি সাইকেল চালিয়ে বাড়ি আসা কে এই শিক্ষিকা!

বাবা-মায়ের সঙ্গে ঈদ করতে ২৫৫ কিমি সাইকেল চালিয়ে বাড়ি আসা কে এই শিক্ষিকা!

ঈদ উপলক্ষে উপহার সামগ্রী নিয়ে প্রতিবন্ধী পরিবারের বাড়িতে ওসি ও ভাইস চেয়ারম্যান

ঈদ উপলক্ষে উপহার সামগ্রী নিয়ে প্রতিবন্ধী পরিবারের বাড়িতে ওসি ও ভাইস চেয়ারম্যান

বাড়িওয়ালা কর্তৃক বিতাড়িত করোনায় আক্রান্ত পরিবারের পাশে ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল

বাড়িওয়ালা কর্তৃক বিতাড়িত করোনায় আক্রান্ত পরিবারের পাশে ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল