ঢাকা, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১

শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে যা বললেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক

অনলাইন ডেস্ক

২০২১-০৩-২১ ০১:২৭:২৫ /

 

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এম মনসুরুল আলম জানিয়েছেন, 'আগামী ২৪ মে থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে' বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যা কিছু প্রচার করা হচ্ছে, তা পুরোপুরি গুজব।

শনিবার গণমাধ্যমকে এ কথা জানান তিনি। মনসুরুল আলম বলেন, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার বিষয়ে কোনো তারিখ এখনো নির্ধারণ করা হয়নি। এমন কিছু হলে অবশ্যই তা গণমাধ্যমের মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।

ফেসবুকে ছড়ানো হচ্ছে- 'দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা চার ধাপে শুরু হবে আগামী ২৪ মে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে। আগামী ২৪ ও ৩১ মে এবং ১৪ ও ২১ জুন সকাল ১০টায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।' এই তথ্যগুলো পুরোপুরি অসত্য বলে জানান মহাপরিচালক।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্র জানায়, করোনার মধ্যে বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় একটি মহল একে পুঁজি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন অসত্য তথ্য ছড়াচ্ছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (পলিসি অ্যান্ড অপারেশন) মনীষ চাকমা বলেন, বিসিএসে পদের সংখ্যা ২ হাজার আর প্রাথমিকে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। মাঠ পর্যায়ে নিয়োগ পরীক্ষার কোনো নির্দেশনা নেই। এ বিষয়টি একদম প্রাথমিক স্তরে রয়েছে। আমরা কবে করবো তাও জানি না। তবে এটাও ঠিক নিয়োগ পরীক্ষার বিষয়ে গুজবের বিষয়টি আমাদের নজরে আছে।

তিনি আরো বলেন, প্রতারক চক্রের অভাব নেই। সারাদেশে বেশকিছু প্রতারক চক্র এভাবে সাধারণ মানুষকে প্রতারণা করে আসছে। তবে এ ধরনের তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার না করতে আবেদনকারীদের অনুরোধ করেন তিনি।

বিডি-শিক্ষা 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

রাজাপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসে ডেপুটেশনকৃত শিক্ষক নুরনবীর বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ

রাজাপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসে ডেপুটেশনকৃত শিক্ষক নুরনবীর বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ

জনপ্রশাসনমন্ত্রী মহোদয়ের সাথে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ভার্চুয়াল মতবিনিময়

জনপ্রশাসনমন্ত্রী মহোদয়ের সাথে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ভার্চুয়াল মতবিনিময়

প্রাথমিকে অনলাইন বদলি শুরুর আগে আবেদনকৃত শিক্ষকদের বদলির সুযোগ চাই

প্রাথমিকে অনলাইন বদলি শুরুর আগে আবেদনকৃত শিক্ষকদের বদলির সুযোগ চাই