ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা সম্পর্কে যা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

২০২১-০৯-১৩ ১৫:৫১:৪৪ /

ফাইল ছবি
২০২৩ সাল থেকে পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) এবং অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা থাকবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা উপস্থাপনের পর সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

তিনি বলেন,এসএসসি পরীক্ষার আগের কোনও পাবলিক পরীক্ষা থাকছে না। দশম শ্রেণি পর্যন্ত বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগ থাকছে না।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখায় নবম-দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞান, মানবিক, বাণিজ্য বিভাগ থাকবে না। সবাইকে একই বিষয় পড়তে হবে। তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত কোনও বার্ষিক পরীক্ষা থাকবে না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি পরীক্ষা হবে শুধু দশম শ্রেণির পাঠ্যক্রমের ওপর। এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল নির্ধারণ হবে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার ওপর।

তিনি জানান, পরিমার্জিত কারিকুলামের খসড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুমোদন দিয়েছেন। শ্রেণিকক্ষেই পাঠদান সম্পন্ন করার ব্যবস্থা রেখে পরিমর্জিত কারিকুলাম প্রণয়ন করা হয়েছে। তবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা চলমান থাকবে বলে জানান তিনি।

এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে বিশ্ব যখন এগিয়ে যায়, তখন কোনোভাবে দেশ পিছিয়ে থাকতে পারে না।

গণভবনে সোমবার সকালে জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখার খসড়ায় উপস্থাপনের সময় প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ শিক্ষা// আলম

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

কোন সাল থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন কার্যকর হচ্ছে

কোন সাল থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন কার্যকর হচ্ছে

আধা-সেদ্ধ ভাত খেলে হতে পারে যে ধরনের মারাত্বক ক্ষতি

আধা-সেদ্ধ ভাত খেলে হতে পারে যে ধরনের মারাত্বক ক্ষতি

ফেসবুক-ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দিতে ভ্যাট ৩০%, বিপাকে ভুক্তভোগীরা

ফেসবুক-ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দিতে ভ্যাট ৩০%, বিপাকে ভুক্তভোগীরা