ঢাকা, সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১

যে কারণে বন্ধ করা হচ্ছেনা অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

নিজস্ব প্রতিবেদক

২০২১-১০-২২ ০০:০৬:২২ /

ফাইল ছবি
ব্যবহারকারীদের কথা বিবেচনা নিয়ে এখন থেকে মোবাইল সেট চালু করলেই স্বয়ংক্রিভাবে নিবন্ধন হবে। এতে অবৈধ ফোন হলেও আর বন্ধ হচ্ছে না।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) এ নির্দেশনা দিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়। এই নির্দেশনার কারণে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেনটিটি রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) নীতিগত সিদ্ধান্তে কিছুটা পরিবর্তন এনেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বৈধ কিংবা অবৈধ যেকোনো মোবাইল ফোন গ্রাহক ব্যবহার শুরু করলে আর বন্ধ হবে না।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গণমাধ্যমকে বলেন, ব্যবহৃত মোবাইলের ৭০ শতাংশ ফিচার। সেখানে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় না। তাদের জন্য নিবন্ধন একটি ভোগান্তির কাজ। এ ছাড়াও মোবাইলে আইএমইআই নম্বর (শনাক্তকরণ নম্বর) দিয়ে বৈধ-অবৈধ যাচাইয়ে বেশির ভাগ সাধারণ মানুষ পারবেন না। এসব ভোগান্তির কথা বিবেচনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে আলাপ করেছি। তিনি (উপদেষ্টা) মানুষ যাতে ভোগান্তিতে না পড়ে, তা নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেন। সেই অনুযায়ী বিটিআরসিকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

অবৈধ মোবাইল সেটের বিষয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, অবৈধ ফোন ধরা আমাদের কাজ নয়। এটি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাজ। আমরা আইএমআই ডাটাবেজ তৈরি করে দেব। প্রয়োজনে এনবিআরকে ডাটাবেজেরে একসেসও দিয়ে দেওয়া হবে। এনবিআর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবে কোন ফোন অবৈধ। তারা কাগজপত্র চাইলে সেগুলো তাদের সরবরাহ করা হবে।

প্রসঙ্গত, দেশে প্রায় ৫৫ লাখ অবৈধ মোবাইল ফোন রয়েছে। সরকারের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনে এখন এসব ফোন আর বন্ধ হবে না।

বাংলাদেশ শিক্ষা// আলম

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

কি বদলাচ্ছে ফেসবুকে'র, জানালেন মার্ক জাকারবার্গ

কি বদলাচ্ছে ফেসবুকে'র, জানালেন মার্ক জাকারবার্গ

যে কারণে বন্ধ করা হচ্ছেনা অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

যে কারণে বন্ধ করা হচ্ছেনা অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

মোবাইল ইন্টারনেটের সেবা বন্ধ রাখা সম্পর্কে যা জানা গেল

মোবাইল ইন্টারনেটের সেবা বন্ধ রাখা সম্পর্কে যা জানা গেল