ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২

অগ্নিদগ্ধ শিক্ষিকার অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক, মামলা দায়ের

জেলা প্রতিনিধি

২০২২-০১-০৭ ১৬:৪৬:১১ /

প্রতিকি ছবি
রাজশাহীর স্কুলশিক্ষক ফাতেমা খাতুনের (৩৭) শরীরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টায় তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলায় ওই শিক্ষকের স্বামী সাদিকুল ইসলামকে (৪০) একমাত্র আসামি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে ফাতেমা খাতুনের ভাই আবদুর রাজ্জাক বাদী হয়ে মহানগরীর রাজপাড়া থানায় এ মামলা করেন।

রাজপাড়া থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আসামি সাদিকুল ঘটনার পর থেকেই পলাতক। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সাদিকুল ইসলাম মহানগরীর চার নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সাজ্জাদ হোসেনের ছেলে। তার বাড়ি মহানগরীর বুলনপুর ঘোষপাড়া এলাকায়। তার স্ত্রী ফাতেমা খাতুন মহানগরীর মহিষবাথান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। তিনি দুই সন্তানের মা।

পরিবারের ভাষ্যমতে, দাম্পত্য কলহের জের ধরে গত বুধবার রাত ১টার দিকে ফাতেমার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন সাদিকুল। এতে তার হাত, বুক, মুখমণ্ডল পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় শ্বাসনালি। ঘটনার পর রাতেই ফাতেমাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক।

রামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের প্রধান ডা. আফরোজা নাজনীন শুক্রবার দুপুরে জানান, ফাতেমার শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। শ্বাসনালি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। ফাতেমার শরীরের ২৫ শতাংশ আগুনে পুড়েছে বলেও জানান এই চিকিৎসক।

বিডিশিক্ষা// এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

ড. জাফর ইকবালের অনুরোধে অনশন স্থগিত করলো শিক্ষার্থীরা

ড. জাফর ইকবালের অনুরোধে অনশন স্থগিত করলো শিক্ষার্থীরা

পালশা ইউনিয়ন বাসীর দারপ্রান্তে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী ইসমেত চৌধুরী

পালশা ইউনিয়ন বাসীর দারপ্রান্তে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী ইসমেত চৌধুরী

নালিতাবাড়ীতে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

নালিতাবাড়ীতে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার