ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

IPEMIS সফটওয়্যারে নতুন তথ্য সংযোজন,সিস্টেমে এসেছে পরিবর্তন

বিডি-শিক্ষা রিপোর্ট

২০২২-০৫-০১ ১৭:৩০:১৬ /

 

IPEMIS সফটওয়্যার পুনরায় খুলে দেয়া হয়েছে। শিক্ষকের ছবি ও স্বাক্ষর ছাড়া অন্য কোনো কিছু আপলোড দেয়া লাগবে না। 

IPEMIS সিস্টেমে একটা নতুন সফটওয়্যার আপডেট দেয়া হয়েছে। এই আপডেটে বেশ কিছু বাগ বা সিস্টেমের অভ্যন্তরীণ সমস্যা সমাধান করা হয়েছে। একই সাথে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আদেশ অনুযায়ী সিস্টেমে বেশ কিছু পরিবর্তনও আনা হয়েছে।

যে সকল সমস্যার সমাধান করা হয়েছে : 

* পোস্টিং -এর ইতিহাসে কিছু লেবেল পরিবর্তন         করা হয়েছে যা ইউজারদের কনফিউশন দূর করবে এবং এখানে কিছু নির্দেশিকাও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যা ইউজারকে তথ্য প্রদানে সহায়তা করবে। 

* পোস্টিং -এর ইতিহাসে প্লেসমেন্ট স্কুল সংক্রান্ত সমস্যাটি সমাধান করা হয়েছে। 

* পোস্টিং -এর ইতিহাসে কিছু কিছু ক্ষেত্রে বিদ্যালয়ের নাম সম্পূর্ণ প্রদর্শন করতো না, এটা সমাধান করা হয়েছে। 

* স্কুলগুলোর জন্য নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক যোগ করার ক্ষেত্রে একটা সমস্যা ছিল যা সমাধান করা হয়েছে। 

* তথ্য অনুমোদনের সময় অনুমোদনকারী চাইলে যে কোন তথ্য সংশোধন করে অনুমোদন দিতে পারবেন। 

* অনেকের ক্ষেত্রে চাকরির অবস্থা অজানা প্রদর্শন করতো, এটি সমাধান করা হয়েছে। 

* বেশ কিছু ফিল্ডের জন্য সর্বোচ্চ ডাটা লেংথ বা ফিল্ড সাইজ ফিক্সড করা হয়েছে যার মাধ্যমে অনেক অপ্রত্যাশিত সমস্যার সমাধান হয়েছে। 

* কিছু বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যে কোন শিক্ষকই সিস্টেমে লগইন করতে পারছিলেন না, 
 এই সমস্যাটি সমাধান করা হয়েছে। 
 
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আদেশ অনুযায়ী যে সকল পরিবর্তন আনা হয়েছে : 

* সকল ধরনের পেন্ডিং এপ্রুভাল রিকোয়েস্ট এখন 
থেকে প্রশিঅ এর সুপার এডমিন ইউজার দেখতে পাবেন। 

*বর্তমানে কেবল মাত্র নিজের প্রোফাইল পিকচার ও স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি আপলোড করা লাগবে। 
প্রোফাইল পিকচারের সর্বোচ্চ সাইজ ১০ মেগাবাইট 
এবং স্বাক্ষরের স্ক্যান কপির সর্বোচ্চ সাইজ ২ মেগাবাইট ফিক্সড করা হয়েছে। 

* নিয়োগের বা বদলির গেজেট, শিক্ষাগত ডিগ্রীর সার্টিফিকেট, ট্রেনিং -এর সার্টিফিকেট, জন্ম সনদ, 
এনাইডি কপি ইত্যাদি ডকুমেন্ট -এর স্ক্যান কপি 
আপলোড করার অপশন তুলে দেয়া হয়েছে, 
আপাতত এগুলি আপলোড করার কোনো 
 প্রয়োজন নাই বা করা লাগবে না। 

* বিদ্যালয়ের লিস্ট পেইজে নতুন স্কুল কোডের 
পাশাপাশি এখন থেকে পুরাতন EMIS কোডও 
প্রদর্শন করবে, যাতে একই নামের একাধিক 
বিদ্যালয়ের মধ্য থেকে একটা বিদ্যালয়কে সহজে 
চেনা যায়। 

* ভবনের ফ্লোর সাইজ, কক্ষের দৈর্ঘ, প্রস্থ এসব তথ্য 
ভগ্নাংশে প্রদান করা যাবে। 

* ড্রাফট এবং পরবর্তী/নেক্সট বাটন এখন থেকে 
সর্বদা এনাবল থাকবে, ভুল তথ্য প্রদান করে ড্রাফট 
বা পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে তথ্য সংশোধন 
করার জন্য ইউজারকে যথাযথভাবে মেসেজ 
প্রদর্শন করা হবে। 

* AUEO, UEO গন সিস্টেমে বিদ্যমান প্রাইভেট স্কুলগুলির জন্য হেডটিচারের একাউন্ট খুলে দিতে 
পারবেন, এক্ষেত্রে বিদ্যালয়টি কোন ক্লাস্টারের 
অন্তর্ভুক্ত তাও সিস্টেমে উল্লেখ করে দেয়া 
বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। (সূত্রঃ  IPEMIS support group.)

বাংলাদেশ শিক্ষা/এফএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

উপবৃত্তি প্রদানে ডাটা এন্ট্রি সংক্রান্ত নতুন তথ্য দিলেন মহাপরিচালক

উপবৃত্তি প্রদানে ডাটা এন্ট্রি সংক্রান্ত নতুন তথ্য দিলেন মহাপরিচালক

IPEMIS সিস্টেমে নতুন আপডেট এসেছে

IPEMIS সিস্টেমে নতুন আপডেট এসেছে

IPEMIS সফটওয়্যারে নতুন তথ্য সংযোজন,সিস্টেমে এসেছে পরিবর্তন

IPEMIS সফটওয়্যারে নতুন তথ্য সংযোজন,সিস্টেমে এসেছে পরিবর্তন