ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২

সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা প্রদান

ফরিদ আহাম্মদ

২০২২-১০-২৬ ১২:২৫:১০ /


দ্রুত গতিতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে সরকারি বা আধা-সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতিমাসের বেতনের সাথে মহার্ঘ ভাতা প্রদান করা এখন সময়ের দাবি।বর্তমানে দ্রব্যমূল্যের সাথে সমন্বয় ও মূল্যস্ফিতির সাথে বাজার মূল্যের সমন্বয়ে জীবনযাত্রার মান ঠিক রাখতে এ ভাতা প্রদান করা জরুরি। 

২০০৯ সালের জাতীয় বেতন স্কেল জারি করার পর ২০১৩ সালে মহার্ঘ ভাতা প্রদানের আদেশ জারি করা হয়েছিল। সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ও অর্থ লগ্নী প্রতিষ্ঠানসমূহের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী এবং সামরিক বাহিনীর সকল সদস্যকে অন্তর্ভর্তীকালীন ব্যবস্থা হিসেবে তাদের মূল বেতনের ২০% (বিশ শতাংশ) হারে মাসিক সর্বনিম্ন ১৫০০/- (এক হাজার পাঁচশত টাকা এবং সর্বোচ্চ ৬০০০/- (ছয় হাজার) টাকা মহার্ঘ ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল।


মূলত নিয়োগকারী বা মালিক (Employer) কর্তৃক নিয়োগকৃত কর্মচারীদেরকে (Employees) নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির দাম বেড়ে যাওয়ার সাথে জীবনযাপনে কুলিয়ে ওঠার জন্য যে বিশেষ ভাতা প্রদান করে তা-ই মহার্ঘ ভাতা । মূল বেতনের নির্দিষ্ট শতকরা অংশ বেতনের সাথে অতিরিক্ত প্রদান করা হয় । এটি প্রতি মাসেই দেয়া হয়ে থাকে। যেমন কারও মাসিক বেতন ১০,০০০ টাকা, আর মহার্ঘ ভাতা যদি হয় ২০% তাহলে তার বেতন দাঁড়াবে ২,০০০ টাকা । সরকারি বা বেসরকারি উভয় ধরনের প্রতিষ্ঠানে মহার্ঘ ভাতা দেয়া হয়।


বর্তমান বাজার মূল্যের সাথে ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের বেতন ভাতার সমন্বয় কোনভাবে বার্ষিক ৫% বেতন বৃদ্ধির মাধ্যমে সময় হচ্ছে না। দ্রুত গতিতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি ও জীবন যাত্রার মানের সাথে খাপ খাওয়াতে মহার্ঘ ভাতা প্রদান আবশ্যক হয়ে পড়েছে। 

২০১৫ সালের জাতীয় পে স্কেল জারির পর সম্প্রতি শিক্ষানবিশকাল শেষে ব্যাংকারদের সর্বনিম্ন বেতন হবে ৩৯ হাজার টাকা বেসরকারি খাতের ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সর্বনিম্ন বেতন-ভাতা বেঁধে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, ব্যাংকের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের একনিষ্ঠতা, নৈতিকতা, মনোবল ও কর্মস্পৃহা অটুট রাখার লক্ষ্যে তাঁদের যথাযথ বেতন-ভাতা প্রদান আবশ্যক।মন্ত্রণালয়/বিভাগ, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর এবং দপ্তরে নিয়ােগ/পদোন্নতি সংশ্লিষ্ট কাজের সম্মানী/পারিতােষিক হার পুন:নির্ধারণ করে প্রায় ৪০% বাড়ানো হয়েছে।


পরিশেষে বলবো,১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের বর্তমান অসহায় অবস্থা থেকে উত্তোরণের ন্যূনতম উপায় মহার্ঘ ভাতা প্রদান করা।বর্তমান বাজারে দ্রুত গতিতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি ও জীবন যাত্রার মানের সাথে খাপ খাওয়াতে পারছেনা সরকারি কর্মচারী ও শিক্ষকরা।জীবনমান স্বভাবিক রাখার জন্য দ্রুতই মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করা দাবি জানাচ্ছি। 

লেখক: শিক্ষক ও চিফ এডমিন,পিটিজি অনলাইন  গ্রুপ। [email protected]

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুশাসন প্রতিষ্ঠা:মোঃ মাসুদুল হাসান

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুশাসন প্রতিষ্ঠা:মোঃ মাসুদুল হাসান

শিক্ষাক্ষেত্রে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা: মো: মাসুদুল হাসান

শিক্ষাক্ষেত্রে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা: মো: মাসুদুল হাসান

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়